Md. Helal Uddin Adv

Quotes ( বানী )

 

১. বুদ্ধিমানরা শিখতে ভালবাসেন, 
কারন নতুন শিক্ষার মঝে নতুন উপলব্ধি, 
আর এই উপলব্ধিই আনতে পারে বৈপ্লবিক পরিবর্তন ।
২. বুদ্ধিমান মানুষ আত্মনিয়ন্ত্রণ করতে পারে 
এঁরা সাময়িক লাভকে সামলিয়ে বৃহত্তর লাভকেই প্রাধান্য দেয় ।
৩. বুদ্ধিমান মানুষ মুক্ত মনের অধিকারী, ভিন্নমত ও মানবতার প্রতি শ্রদ্ধাশীল।
৪. বুদ্ধিমান মানুষ অভিযোজন ক্ষমতা সম্পন্ন,
তাঁরা নতুন পরিবেশের সাথে দ্রুতই মিশতে এবং সেই পরিবেশের গুণগত পরিবর্তন আনতে সক্ষম ।
৫.বুদ্ধিমান মানুষ অনুমান ক্ষমতা সম্পন্ন, 
তাঁরা মানুষের আবেগ ও উদ্দেশ্যে আঁচ করতে পারেন ।
৬. বুদ্ধিমান মানুষ একাকীত্বকে জয় করে 
সৃষ্টিশীল কাজে সফলতার স্বাক্ষর রাখতে সক্ষম ।
৭. সকল দুর্নীতিবাজরাই সম্পদ, টাকার মালিক! 
সৎ মানুষেরা এখন বেকুব, নিঃস্ব!!
৮. ভাষা ও চেতনার মাস ফেব্রুয়ারি ; 
পরিবার, গোষ্ঠীর বিপরীতে 'জাতিস্বত্বা'র
বিকাশ আজও হয়নি,
স্বাধীনতা পেলেও মুক্তি আসেনি ।
৯. আত্ম উপলব্ধিতে ১৬ কোটি মানুষকে জাগিয়ে তুলতে হবেঃ 
যা হবে অমেয় শক্তি, 
মূর্ত হোক ৭১ এর স্বপ্ন ।
১০. দূর্নীতিপরায়ন ক্ষমতাবানরা জ্ঞান বিতরণ করছেন ! 
কান্ডারী হুঁশিয়ার ।
১১. ন্যাংটাকে ন্যাংটা বলার সৎ সাহস যার নেই, 
তার তো সমাজ মানুষ দেশ নিয়ে কথা বলা 
তথা রাজনীতি করার অধিকারই থাকতে পারেনা ।
১২. ভোটের অধিকার,জনমুখি কর্মসূচি,
আস্থাভাজন রাজনৈতিক ঐক্য, সাহসী নেতৃত্ব 
ও জনগণের সক্রিয় অংশগ্রহণই পারে আন্দোলন সফল করতে ।
১৩. দেশপ্রেমিক বা দলপ্রেমিক নয়, 
দল কানা স্বার্থাণ্বেষীই বেশী, 
এদের আধিক্য মহাসড়কের মাঝখানে। 
এমহাসড়ক কিন্তু উন্নয়নের মহাসড়ক নয়!
১৪. ধর্ষক,সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ভুমিদস্যু,
দূর্নীতিবাজ, কালো টাকার পাহাড়, মাদক কারবারি 
ও দেশের সম্পদ পাচারকারী 
এদের ক্রস ফায়ারে দেয়া হোক ।
১৫. বুদ্ধিমান মানুষ পরিমিত ঝুঁকির সাথে পথ চলেই 
সফলতার চরম শিখরে উপনীত হন।
১৬. দল পরিচালনায় বা সিদ্ধান্তগ্রহনে
আপনার কোন ভূমিকা বা অধিকার নেই,
তাহলে দলের আপনি কে?
কর্মচারী,না চামচার চামচা,না ধান্দাবাজ?
১৭. বুদ্ধিমান মানুষের পরিমিত কৌতুকরস
দ্রুতই অন্যের আত্মায় বন্ধুত্বের উষ্ণতা আনতে সক্ষম ।
১৮. বিচারাঙ্গনে অনিয়ম, দুর্নীতি, সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ-এপ্রত্যয়ে আইনজীবীদের ঐক্য চাই ।
১৯. বুদ্ধিমান মানুষ ভুল থেকে শিক্ষা নেন,
ভুলের মাঝে এঁরা বসবাস করেন না ।
২০. বুদ্ধিমান মানুষ, পতিতঃ সমস্যার মাঝেও 
সমাধানের পথ খুঁজে নিতে সক্ষম ।
২১. এদেশে সর্বস্ব দিয়েও নিঃস্ব হয়না কেবল নেতারা !
২২. বাক্স ভর্তি ব্যালট পেপারই নির্বাচন নয় । 
স্বপ্নের গণতন্ত্র বাস্তবায়নে জনগণের সক্রিয় অংশগ্রহণমূলক নিরবিচ্ছিন্ন আন্দোলন চাই।
২৩. ' ভুল ও পরাজয় ছাড়া কক্ষনো 
শিক্ষা সম্পূর্ন হয়না ' - #লেনিন ।
বাংলাদেশের অভ্যুদয় থেকে অদ্যাবধি 
সম্ভাবনাময় বৈপ্লবিক শক্তিগুলোর 
আপোষকামীতা, লেজুড়বৃত্তি ও 
হটকারীতার কারনে নতুন সমাজ কাঠামো 
গড়ে তুলতে বৈপ্লবিক ধারার রাজনীতি 
শুরুই করা হয়নি বা যায়নি ।
অপরাজনীতি, দুঃশাসন, নিয়ন্ত্রিত গণতন্ত্র
 ও বিচারহিনতা নিয়ে সমৃদ্ধশালী দেশ ও 
উন্নত জাতি গড়ে তোলা সম্ভব নয় ।
এজন্য বিচার বিভাগের স্বাধীনতা , 
স্থিতিশীলতা, গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার, 
সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা জরুরি ।
জনগনের মুক্তিই যদি একমাত্র লক্ষ্য হয় 
তবে ২০০ বছরের মার্কসবাদ বা ১০০ 
বছরের লেনিনবাদ বা ২০০ বছরের বৃটিশ 
বা ২৪ বছরের পাকিস্থানী ঔপনিবেশিক 
ধারার উত্তরাধিকার ৪৮ বছরের চলমান 
গণবিরোধী শাসন ব্যবস্থার বিপরীতে 
দেশের প্রেক্ষাপটে সমাজ পরিবর্তনের তথ্য 
উপাত্ত ও তত্ত্ব এবং কর্পোরেট অর্থনীতি 
বিবেচনায় নিয়ে লক্ষ্যচ্যুত ভুলগুলো শুধরে 
জনবান্ধব কাঠামোগত আমূল পরিবর্তনের 
লক্ষ্যে মুক্তির সোপানে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ 
করার কাজ শুরু করতে হবে এক্ষনি । 
বিজয়ী হোক বাংলার মানুষ ।
২৪. আইনের শাসন ও আইনজীবীদের অধিকার 
প্রতিষ্ঠা এবং আইন অংগনের সকল দুর্নীতির 
বিরুদ্ধে আসুন ঐক্যবদ্ধ হই।
২৫. নষ্ট ভ্রষ্ট রাজাকার স্বৈরাচার মাদক সন্ত্রাস 
লুটেরাদের বিদায় করে - রাজনীতি,
রাজনীতিবিদদের দ্বারা পরিচালিত হোক
২৬. পাঁচ বছরে একবার তাঁর প্রতিনিধি নির্বাচনে 
প্রচলিত গণতন্ত্রের চেহারা দেখে জনগণ 
স্তম্ভিত বিব্রত হতাশ , এহেন রাজনীতির 
মর্মার্থ নিয়ে প্রতিবাদের ভাষা ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতির পথ অর্জনে অনুসন্ধান ও চর্চা 
এখন সময়ের দাবী ।
২৭. লাজ লজ্জা বিবেক আজ বিতাড়িত,
গনতণ্ত্র সুশাসন আর স্বস্তি নির্বাসিত ।
২৮. স্বাধীনতা তোমার উচ্ছাসভরা দীপ্তপদভরে 
পথ চলার কথা,
আজ সন্তর্পনে পথচলা,
ভীতিভরা ব্যাল্যান্সসিং কৌশলী -
কি কথা রে বাবা !
২৯. জাতির আত্মবিশ্বাসের ভিত্তিতে ধ্বস !
বৈপ্লবিক পরিবর্তনের লক্ষ্যে.. '৫২ '৫৪ 
'৬২ '৬৬ '৬৯ '৭০ '৭১ '৯০ এর 
ধারায় লড়তে হবে আরেকবার..
৩০. নির্বাচন আর উৎসব নয় ,
নয় নাগরিক অধিকার বা দায়িত্ব । 
এটা কেবলই হাস্যকর অথবা আতংক !
৩১. টাকায় সব মিলে , 
নীতিহীনদের বহুল উচ্চারিত একটি অনৈতিক উচ্চারণ ।
৩২.   ৫২ , ৫৪ , ৬২ , ৬৬ , ৬৯ , ৯০ এর 
বিজয় দেখেছি , দেখেছি ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ , 
জনতার শক্তির বিজয় দেখেছি বারবার 
কিন্তু বিজয় লুন্ঠন করেছে বৃটিশ পাকিস্থানীদের উত্তরাধিকার। 
আজ জরুরি প্রয়োজন জনতার ঐক্যবদ্ধ সচেতন অভ্যুদয় ॥
৩৩. প্রতিক্ষণেই পরিবর্তন হচ্ছে, নিরাপদ সড়ক, 
কোটা আন্দোলন, সংসদ নির্বাচন,
ডাকসুর নির্বাচন ইত্যাদি যা নিকট অতীত
থেকে গুণগত মানের দিক থেকে অগ্রসরমান । 
যেকোন নির্বাচন অবাধ হলে পরিবর্তন খুব নিকটেই ।
দরকার জনতার ঐক্য এটা হয়েই আছে,
শুধু প্রয়োজন সাহসী নেতৃত্ব । 
সময়ের প্রয়োজনে এটা হতে কতক্ষণ ?
কোটি নূর জেগে উঠো ॥
৩৪. অন্যায় করে যত কৌশলেই পার হতে থাকুন না কেন,
একটা সময় নিশ্চিত অন্যায়ের দায়ভারও আপনাকে
কৌশলে নিষ্ঠুরতম পরিণতির মুখোমুখি করবেই ।
৩৫. #বাংলা _মায়ের _চিকিৎসা _জরুরি
সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান সমূহ -- 
রাষ্ট্রপতি বিবেক, স্পীকার নিরপেক্ষতা, 
সুপ্রিম কোর্ট ন্যায়বিচার, এটর্নী জেনেরাল জনগণের অধিকার রক্ষক, 
অডিটর জেনেরাল দেশের সম্পদ রক্ষক,
পাবলিক সার্ভিস কমিশন রাষ্ট্র দেহে নতুন
রক্ত সরবরাহকারী ও নির্বাচন কমিশন জনগণের
মালিকানা নিশ্চিতকারী এবং রাষ্ট্রের তিন অংগ - 
বিচার বিভাগ মস্তিষ্ক, নির্বাহীবিভাগ হার্ট ও আইন বিভাগ শ্বাস-প্রশ্বাস 
#সামগ্রিকভাবে নিজ নিজ এখতিয়ারের মধ্যে 
কার্যক্রম পরিচালিত নিয়ন্ত্রিত হয়েই সামাজিক 
শৃংখলা ও জনজীবনে স্বস্থি ফিরিয়েই স্থিতিশীলতা
উন্নয়নে দেশের সামগ্রিক স্বার্থে সাংবিধানিক 
প্রতিষ্ঠানসমূহ কার্যকর ও রাষ্ট্রীয় তিন অংগের 
মধ্যে আশু সুসমন্বয় ও মেরামত 
(প্রয়োজনে সার্জিক্যাল চিকিৎসা)করেই 
বাংলা মায়ের সুস্থ্যতা নিশ্চিত করা একান্তভাবে জরুরি ।